প্রায় ১ মাস পর আবার শুরু হল OASIS স্কলারশিপে আবেদন প্রক্রিয়া, পোর্টালে বিরাট বদল! দেখেনিন নতুন নিয়ম।

Oasis Scholarship 2023

Oasis Scholarship Application Re-open after 1 month Later: রাজ্যের পড়ুয়াদের জন্য অত্যন্ত খুশির খবর অবশেষে প্রায় ১মাস পর আবার শুরু হলো ওয়েসিস স্কলারশিপে আবেদন গ্রহণ প্রক্রিয়া। পশ্চিমবঙ্গ সরকারের জনপ্রিয় একটি স্কলারশিপ হল ওয়েসিস স্কলারশিপ। এই স্কলারশিপ মূলত SC, ST এবং OBC পড়ুয়াদের দেওয়া হয়ে থাকে। এই স্কলারশিপে পড়ুয়ারা অনলাইনের মাধ্যমে আবেদন করতে পারে। যে সকল ছাত্র-ছাত্রী এই স্কলারশিপে আবেদন করবে তাদের একাউন্টে সরাসরি স্কলারশিপের টাকা ঢুকে যাবে।

   

চলতি শিক্ষাবর্ষ অর্থাৎ 2023-২৪ শিক্ষাবর্ষের জন্য এই স্কলারশিপের আবেদন প্রক্রিয়া শুরু হলেও শুরু হওয়ার কিছুদিন পর থেকে ওয়েবসাইট বন্ধ রাখা হয়। আবেদন পোর্টালটি মূলত আপগ্রেডেশনের জন্য বন্ধ রাখা হয়েছিল। মূলত ওয়েসিস স্কলারশিপে আবেদন প্রক্রিয়াটি ওটিপি সহযোগে আধার ভিত্তিক (Ekyc) করার জন্যই ওয়েবসাইটটি পুনরায় নবীকরণ করা হয়েছে।

ওয়েসিস স্কলারশিপে আবেদনের নতুন নিয়ম

ওয়েসিস স্কলারশিপে আবেদনের জন্য বেশ কিছু নির্দেশিকা ওয়েসিস পোর্টালে দেওয়া হয়েছে। তাই অবশ্যই ওয়েসিস স্কলারশিপে আবেদন করার আগে সমস্ত নির্দেশিকা জেনে তারপর আবেদন করুন।

(১) ওয়েসিস স্কলারশিপে আবেদন করার সময় অবশ্যই যথাস্থানে জাতিসংশাপত্রের নম্বরটি সঠিকভাবে লিখতে হবে

(২) বাংলার শিক্ষা পোর্টালে আবেদনকারীর যে নাম রয়েছে সেই নাম আধার কার্ডের নামের সাথে একই হওয়া জরুরী। না হলে আবেদনপত্র বাতিল হয়ে যেতে পারে। এক্ষেত্রে যদি বাংলার শিক্ষা পোর্টাল এবং আধার কার্ডে নাম একই না থাকে তাহলে ছাত্র-ছাত্রীরা নিজস্ব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যোগাযোগ করে তাদের নাম ঠিক করতে পারবে।

(৩) আবেদনকারীর অবশ্যই নিজস্ব ব্যাংক একাউন্ট দিতে হবে তবেই স্কলারশিপের টাকা পাবে।আবেদনকারী তার পরিবারের কারোর অ্যাকাউন্ট দিলে স্কলারশিপ এর টাকা পেতে অসুবিধা হবে। এছাড়াও আবেদনকারীর ব্যাংক একাউন্টে আধার সংযুক্তিকরণ থাকতে হবে।

(৪) একজন প্রার্থী শুধুমাত্র একবার এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারবে বারবার আবেদন করলে আবেদন প্রার্থীর আবেদন পত্র বাতিল করা হবে

(৫) ওয়েসিস স্কলারশিপে আবেদন করার সময় আবেদন প্রার্থীকে অবশ্যই একটি সক্রিয় নাম্বার দিতে হবে এবং সেই নাম্বারটি কোর্স শেষ না হওয়া পর্যন্ত নিজের কাছে রাখতে হবে

(৬) ওয়েসিস স্কলারশিপে আবেদন করার সময় আবেদনকারীর বয়স, নাম, লিঙ্গ, শিক্ষাগত যোগ্যতা সঠিক স্থানে লিখতে হবে

(৭) ওয়েসিস স্কলারশিপে আবেদন করার সময় আবেদন প্রার্থীর জাতিশংসাপত্রে যে নাম রয়েছে সেই নাম আধার কার্ডে থাকতে হবে এবং আবেদন করার সময়ও সেই নাম ব্যবহার করতে হবে

(৮) ওয়েসিস স্কলারশিপ থেকে কোনো রকম ভুল তথ্য দিয়ে আবেদন করে টাকা পেলে বা মিথ্যে তথ্য দিয়ে আবেদন করলে অর্থাৎ স্কলারশিপ জালিয়াতি করলে স্কলারশিপ এর টাকা পুনরুদ্ধার করা হবে এবং আবেদনকারীর উপর আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে

আবেদন করার জন্য কি কি ডকুমেন্টস প্রয়োজন

ওয়েসিস স্কলারশিপে আবেদন করার জন্য যে যে ডকুমেন্টস লাগবে সেগুলি হল- (১) পারিবারিক ইনকাম সার্টিফিকেট, (২) আবেদন প্রার্থীর জন্ম তারিখের প্রমাণপত্র (যেমন:- আধার কার্ড ইত্যাদি), (৪) আবেদনকারীর নিজস্ব জাতিগত শংসাপত্র, (৫) আবেদনকারীর শেষ পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার মার্কসিট এবং (৬) আবেদনকারী নিজস্ব ব্যাংকের পাসবুক।

ওয়েসিস স্কলারশিপে আবেদনের পোর্টাল » https://oasis.gov.in/

মিস করবেন না » PM Scholarship Scheme: পিএম স্কলারশিপ প্রকল্পে মাসে ৩০০০ টাকা দিচ্ছে কেন্দ্র! জানুন কারা পাবেন?

আবেদনের শেষ তারিখ

যে সকল যোগ্য প্রার্থীরা ওয়েসিস স্কলারশিপে আবেদন করার জন্য অপেক্ষায় ছিলে তারা আবার এই স্কলারশিপে আবেদন করতে পারবে কিন্তু এক্ষেত্রে আবেদন করার লাস্ট ডেট সম্পর্কে ওয়েসিস স্কলারশিপ পোর্টালে জানানো হয়নি

আমাদের হোয়াটসঅ্যাপটেলিগ্রাম গ্রুপে যুক্ত হোন -

Join Group

Telegram